স্বামী বিদেশানন্দ ~ ইমরান ফিরদাউস

পৃথিবী একটা অদ্ভুত দেশ  সকাল থেকে এরকমই   মনে হইতেছিলো বিদেশের   ধন্দ কাটানোর তাড়নায়   ট্রাংককল দিলো এদেশকে   এদেশ তখনও ঘুমে    খুল্লাম খুল্লা উন্নয়নের স্বপ্নে বিভোর  ট্রাংককলের শব্দে স্বপ্নটা স্বপ্না হয়ে   ঝুলে রইলো স্ক্রিনশটের মত   অতঃপর সওয়াল শুনে এদেশ ভাবে   বিদেশের ঘোড়া রোগ হইছে   ঘোড়া রোগ কিভাবে হয় জানেন তো!   আড়াই কদমে হাঁটলেই মানুষ ঘোড়া হয়ে যায়   বিদেশের তাই-ই হইছে।  উন্নয়নের পর্নোগ্রাফিক চশমা চোখে দিয়ে   এদেশ ভাবে এক ইরোটিক বিদেশের কথা   আর বিদেশ সিনেম্যাটিক পর্দার পেছনে   লুকায় লুকায় কান্দে আর ডুকরায় ডুকরায় কয়  আম্মুর কাছে যাবো।।   

আজ কাল পরশুর গল্প ~ ইমরান ফিরদাউস  

বেওয়ারিশ একটা তারিখ এতিম এর মতন তাকায় স্বতঃস্ফূর্ত ক্যালেন্ডারের পানে ক্যালেন্ডারে নাই লাল শুক্রবারের কমতি তারপরও তারিখের নিয়িতিতে জোটে না একটা বিস্বাদ বার এই একক বা দশকের সংখ্যার কৌমার্য  নিয়ে তারিখ এর কাইটা যায় দিন মাস বছর সাতই মার্চ ছাব্বিশে মার্চ ষোলই ডিসেম্বর কত বড় বড় তারিখ কত কত চওড়া তাগো বুকের ছাঁতি বেওয়ারিশ তারিখ ভাবে এ ক্যামন দেশে আইসা পড়লাম শনিবার যায় রবিবার যায় আসে না বন্ধু ভালোবাসে না আমায়। আগামীকাল গতকাল আজকাল তারিখ ভাবে সবাইরে চেনা হয়ে গেছে সব হালা প্রকৃত চুদির ভাই চুইদা কয় স্যরি আপা! **চিত্রকর্ম শিল্পী পটুয়া কামরুল হাসান / শিরোনাম ঋণস্বীকার মানিক ব্যানার্জী

অন্তর্গত ক্ষয় ও প্রশংসিত পচন ~ ইমরান ফিরদাউস  

[অতঃপর উৎসর্গ কোন এক পরিবারের আপা-ভাই-বেরাদরদের কর কমলে] একটা সংগঠন এ যোগ দিয়ে ছিলাম কিছু যৌথ বৃষ্টিস্নাত গোধূলির লোভে একটা সংগঠনের আদ্যোপান্তে জড়িয়ে ছিলেম সিনেমা নামক দিবাস্বপ্নের সকাশে কিন্তু সিনেমা এক সিন্ডিকেটবাজী মতি-চোর এক আলেয়ার ফুলের বাহারে চলে পলিটিক্যাল সিস্টেম্বাজী সুস্থ সিনেমার আন্ডার কাভারে অ-সুস্থ মোনাফেকি/হিপোক্রিসি। একদা রকস্টার কাজী নজরুল ইসলাম এরশাদ করেন দিনে দিনে বহু জমিয়াছে দেনা শুধিতে হইবে ঋণ । তথাপি ঋণ করে ঘি খাওয়ার মজায় মজে গেলে খেলাপি ঋণের আর বেইল থাকে না।   দোহাই মিম কার্টেসি: সোনার বাংলা মিম / The Gold’s Bengali Meme ফটো কার্টেসি: সামী আল মেহেদী

চিহ্ন হাতে দাঁড়িয়ে উমবার্তো একা ~ ইমরান ফিরদাউস 

চিহ্নের কারবার দিনে রাতে আলো আঁধারে চোরাচালান হচ্ছে ইশারায় । গুম হয়ে যাওয়া চোখে লেপটে আছে কাঁথামুড়ি দেয়া ভাষা জবুথবু ঠোঁটে লালা হয়ে ঝরে পড়ে কথামালা  । তরল সন্ধ্যায় নগরীর দেয়ালে ওভারেক্সপোজড রোদে লেখা গেরিলা ধারণারা ওঁত পেতে রয় এই নিউক্লিয়ার দুনিয়ায় জবাকুসুমের আলস্যে । ন্যারাটিভের উঠোনে বসে উমবার্তো ভাবে ত্রিমাত্রিক দুনিয়ায় গোলাপের কেন হয় দ্বিমাত্রিক নাম ! চিহ্নের তলাবিহীন ঝুড়ি গলে লা-পাত্তা কালচারাল জ্যামিঙের ব্লু-প্রিন্ট। চিহ্ন দিয়ে ইডিয়টদের শায়েস্তা করার স্বপ্ন দেখা অধ্যাপক এর বিদেহী রুহ মিসরিডিঙয়ের সানগ্লাস চোখে পায়চারি করে যায় চিহ্ন হাতে একা । ।  

আরবান ড্রাগ স্টোর ~ ইমরান ফিরদাউস

সিগারেট আফটার সেক্স এক আরবান ফ্যান্সিনেস ডিপ্রেশন এক মেডিটেশন বিষণ্নতা একটি রোগ সিবা গেইগি’র টিভিসির আগে সোনার বাঙলায় বিষয়টা হ্যাশট্যাগের মর্যাদা পায় নাই বিটিভির পর্দা জুড়ে সিবা গেইগির ওষুধের চেয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠে ঐ বিজ্ঞাপনের মায়াবী রকিং চেয়ার কারণ, মানুষ তখন পাত্তা দিতে শিখে উঠেনি মন খারাপের কারণে অফিস কামাই দেয়া যেতে পারে। ঘরে ঘরে […]

নীৎশে কইলো একটু আগুন হবে- ইমরান ফিরদাউস

আঁভা গার্দ হাসি স্যুররিয়ালিস্ট কাশি ইমেজ দিয়ে ধুঁয়ে নাও চোখ পোস্ট-মর্ডান গিমিক এক গ্যাঞ্জাম উপরে ফূর্তি ভিত্রে ক্লান্তি শিল্পে ‘হয়ে উঠা’ এক তালগাছ ভাষা চায় উঠতে সেই গাছে তত্ত্বের বাজারে পায় না খুঁজে মই জীবন থেকে নেয়া নিঃশেষিত সিনেমা থেকে এখন ক্লান্তিহীন অনুকরণ তোমার-আমার ভালোবাসা এক যৌথ বিদেশ রিফিউজি আমি সেপার্টিস্ট তুমি দুঃস্বপ্নের বালিশে মাথা […]